কনফিডেন্স সল্ট মোবাইল ফটোগ্রাফি পুরস্কার পেলেন ১২ জন

চারপাশের নান্দনিক সৌন্দর্য সবসময় আমাদেরকে মুগ্ধ করে। আর এই সৌন্দর্যকে চিত্রবন্দী করে রাখতে পারলে এর মোহ থাকে দীর্ঘদিন। বর্তমান সময়ে ক্যামেরাযুক্ত মোবাইল নেই এমন কাউকে পাওয়া যায় না বললেই চলে। আর সেই ক্যামেরাকে ব্যবহার করে যদি দারুন কিছু ছবি ফ্রেমবন্দী করা যায় তবে তা হয় অভিনব ও সৃজনশীলতার প্রকাশ। হুইজ কমিউনিকেশন্সের ইভেন্ট পরিচালনায় এমনি একটি উদ্যোগ নিয়ে চতুর্থবারের মত মোবাইল ফটোগ্রাফি প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে কনফিডেন্স সল্ট লিমিটেড। 

মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) এই প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান হয়ে গেল চট্টগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমি আর্ট গ্যালারিতে। 

অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-পরিচালক ডা. বিদ্যুৎ বড়ুয়া, বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রামের অনুষ্ঠান অধ্যক্ষ রুমানা শারমিন, চট্টগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম বাবু, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. আদনান মান্নান, বারকোড রেস্টুরেন্ট গ্রুপের সত্ত্বাধিকারী মঞ্জুরুল হক,  হুইজ কমিনিকেশন্সের ম্যানেজিং ডিরেক্টর মাসুদ বকুল, সুচিন্তা ফাউন্ডেশন চট্টগ্রামের সমন্বয়ক জিনাত সোহানা চৌধুরী, কনফিডেন্স সল্ট লিমিটেডের হেড অব ফিন্যান্স আবু তৈয়ব, হেড অব মার্কেটিং সরদার নওশাদ ইমতিয়াজ ও হুইজ কমিউনিকেশন্সের ডিরেক্টর (এডমিন এন্ড অপারেশন্স) কাজী আরফাত। 

অনুষ্ঠানের অতিথি ডা. বিদ্যুৎ বড়ুয়া বলেন, মোবাইল ব্যবহার করে যে অনেক সৃজনশীল কাজও করা যায়, এই প্রতিযোগিতা তারই প্রমাণ। 

তিনি বলেন, করোনা মহমারির মধ্যেও তরুণদের ব্যাপক অংশগ্রহণ বিচারক হিসেবে আমাকে প্রাণিত করেছে। এই প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের ছবি দিয়ে ২০২২ সালের কনফিডেন্সের সল্টের ক্যালেন্ডার সাজানো হয়েছে। যা নিঃসন্দেহে বিজয়ীদের জন্য অনেক সম্মানের একটি বিষয়। 

চট্টগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম বাবু বলেন, প্রতিটি তরুণ সৃজনশীলতার অপার সম্ভাবনা নিয়ে বেঁচে থাকে। কেউ সেটাকে প্রকাশ করতে পারে, কেউ পারে না। সমাজের যারা অগ্রগ্রামী তাদের উচিত তরুণদের সৃজনশীলতাকে বিকশিত করার জন্য আরও বেশি এগিয়ে আসা। কারণ, একটি সৃজনশীল তরুণ প্রজন্মই পারে বাংলাদেশ সুন্দর ও স্বপ্নময় করে গড়ে তুলতে।

হুইজ কমিউনিকেশন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাসুদ বকুল বলেন, তরুণদের মেধা ও মননকে একটু উৎসাহ দিলে ভালো কিছু করা সম্ভব। তার একটি উদাহরণ এই মোবাইল ফটো কনটেস্ট। ছবি তোলার ক্ষেত্রে আমাদের তরুণদের যে সৃজনশীলতা তা এই প্রতিযোগিতার মাধ্যেমে ওঠে এসেছে। 
 
এবারের প্রতিযোগিতায় সারাদেশ থেকে প্রায় সাড়ে ৫ হাজার ছবি জমা পরে। যার মধ্যে থেকে বিচারকদের রায়ে ১২টি ছবি চূড়ান্তভাবে মনোনীত হয়েছে। বিজয়ীরা হলেন- শফিউল ইসলাম সৈকত (ঢাকা), সাব্বির রহমান সোহান (চট্টগ্রাম), তানভীর মাহামুদ (চট্টগ্রাম), জ্যাক বড়ুয়া (কক্সবাজার), সায়েম মুহাম্মদ নাদিম (চট্টগ্রাম), শাওন হাওলাদার (বরিশাল), তারেক মাহামুদ (নারায়ণগঞ্জ), মেহেদী হাসান (শেরপুর), মাহদী হাসান (ঢাকা), আরফান শরীফ (ঢাকা), বিজয় চক্রবর্তী (নরসিংদী) ও সভ্যসাচী দাশ (রংপুর)।

পুরস্কার হিসেবে বিজয়ীদের নগদ প্রাইজমানি, সনদপত্র, মনোনীত ছবিযুক্ত ফ্রেম, ক্যালেন্ডার এবং অন্যান্য উপহার সামগ্রী প্রদান করা হয়।

News Source: https://www.mohanagarnews.com/metropolis/news/11150#.YehMSVMxWuU.facebook

Leave a Reply

Your email address will not be published.Required fields are marked *